খাওয়া বন্ধ না করে মাসে ৫ কেজি ওজন কমানোর উপায়


জাতীয় কণ্ঠ ডেস্ক প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ৫, ২০২৩, ১:১৯ অপরাহ্ন /
খাওয়া বন্ধ না করে মাসে ৫ কেজি ওজন কমানোর উপায়
নিউজটি শেয়ার করুন

অনলাইন ডেস্ক :এখন ‘প্লাস সাইজ’ ফ্যাশনে ইন। এরপরও বাড়তি ওজন কমানোর চেষ্টা করেন বেশিরভাগ মানুষ। তবে খাওয়াদাওয়া একেবারে বন্ধ করে কিংবা কঠোর ডায়েট করে ওজন কমানো উচিত নয়। কাজটি করতে হবে স্বাস্থ্যকর উপায়ে।

পুষ্টিবিদদের মতে, একজন মানুষের জন্য মাসে তিন কেজি কমানো স্বাস্থ্যসম্মত। সবচেয়ে ভালো হয় হাতে পাঁচ মাস সময় নিয়ে ডায়েট শুরু করা। লক্ষ্য হবে আট-দশ কেজি ওজন কমানো। একেক জনের দেহের গঠন হয় একেক রকম। তবে কম সময়ে ওজন কমাতে চাইতে নজর দিতে হয় পেট, উরু আর নিতম্বের মেদে।
ফিটনেস বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রাথমিকভাবে স্কোয়াট, রোয়িং, হ্যামকার্ল, লঞ্জের মতো ব্যায়ামগুলো করতে হবে। নিয়মিত এসব ব্যায়াম করার মাধ্যমে অনেকটা ওজন কমানো সম্ভব। পেটের মেদ কমাতে করতে হবে প্ল্যাঙ্ক, সাইড প্ল্যাঙ্ক, ব্রিজ ইত্যাদি ব্যায়াম।

তবে কেবল শরীরচর্চা করলেই হবে না। ব্যায়ামের পাশাপাশি জীবনযাপনেও আনতে হবে পরিবর্তন। কিছু অভ্যাস রয়েছে যা ওজন কমানোর প্রক্রিয়াকে তরান্বিত করে। চলুন জেনে নিই বিস্তারিত-

খাবার খেতে হবে দ্রুত

রাতের খাবার যত তাড়াতাড়ি সম্ভব খেতে হবে। ঘুমোনোর অন্তত আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা আগে খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

হাঁটুন
নিয়মিত শরীরচর্চা পাশাপাশি দিনে অন্তত আধা ঘণ্টা হাঁটুন। এতে ওজন ঝরার প্রক্রিয়া তরান্বিত হয়।

একসঙ্গে অনেক খাবার নয়

একসঙ্গে অনেক খাবার না খেয়ে সারা দিনে অল্প অল্প করে পাঁচ থেকে ছ’বার খাওয়ার অভ্যাস করুন।

পর্যাপ্ত পানি পান

ওজন কমাতে চাইলে সবার আগে বেশি করে পানি পানের অভ্যাস করুন। নয়তো সমস্যায় পড়বেন। দৈনিক আট থেকে দশ গ্লাস পানি পান করুন।

কোন কোন খাবার খাওয়া বন্ধ করতে হবে?

জ্যাম-জেলি, মাখন, মার্জারিন, মিষ্টিজাতীয় খাবার, চিপস, চকোলেট, রাস্তার ধারের ভাজাভুজি, হাই ক্যালোরিযুক্ত ফল (কলা, সবেদা, আম, আতা, কাঁঠাল), বড়া, ভাজা, আলুর কোনো পদ, নরম পানীয়, প্যাকেটজাত ফলের রস খাওয়া বন্ধ করতে হবে।

ড্রাই ফ্রুটসের মধ্যে আখরোট, কাজুবাদাম, চিনেবাদাম খেতে পারেন, তবে ২-৪টির বেশি নয়। এই সময়ে লো-ক্যালোরি ডায়েট মেনে চলতে হবে।